• অপরাধ

    দুর্নীতির স্বর্গরাজ্য চট্টগ্রাম রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মস্থল!

      প্রতিনিধি ১১ মে ২০২৩ , ৩:৫৩:৫০ প্রিন্ট সংস্করণ

    শরীফ হায়দার শিবলু: রক্ষক যখন ভক্ষণকারী রুপে আবির্ভূত হয়, তখন আর রক্ষার অবশিষ্ট  কিছুই থাকেনা। বলছি বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল বিভাগের রেলওয়ের দেখভাল ও রেলওয়ের পরিত্যাক্ত সম্পত্তির রক্ষা করার জন্য যাদের হাতে দায়িত্ব অর্পিত সেই নিরাপত্তা বাহিনী আরএনবির সদস্যদের হাতে চলছে দুর্নীতির মহাপ্লাবন!

    অন্যদিকে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের এসব অপকর্মের সহযোগিতা করে অভিযুক্তদের থেকে উপড়ি নেয় নিরাপত্তা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট সিনিয়র কর্মকর্তারা!

    এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে অনুসন্ধানের দায়িত্ব দেওয়া হলে অভিযুক্ত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যের কাছ থেকে টাকা মাধ্যমে তদন্ত প্রতিবেদন দামাচাপা দিয়ে দেয় সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ।
    সিআই রেজওয়ানুর রহমান ও সিআই আমানের বিরুদ্ধে আরএনবি বিভাগে অনিয়মে জড়িত থাকার অভিযোগের শেষ নেই।

    ২০২২ সালের (৮ আগষ্ট) বটতলী স্টেশনে ঘটে যাওয়া সেনা সদস্যের উপর হামলার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দোষী আরএনবি সদস্যদেরকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়ার পর র্যাব তাদের আটক করে আদালতে প্রেরন করে।

    জামিনে বের হওয়ার পর কমান্ড্যান্ট রেজওয়ানুর রহমান সংবাদ মাধ্যমকে সাময়িক বরখাস্ত ৪ জন সিপাহী মঈন হাসান রাকিব, রিটন চাকমা, ইয়াসিন আরাফাত ও হাবিলদার মো. রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বল্লেও তদন্ত করার দায়িত্ব দেওয়া সিআই রেজোয়ান অভিযুক্তদেরকে বাঁচাতে তদন্ত না করে উল্টো দোষী নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের রক্ষা করতে তৎপর ছিলেন সিআই রেজওয়ানুর রহমান!

    যার কারনে সেনা সদস্যের সাথে ঘটনার মুল অপরাধীদের বিরুদ্ধে এখনো ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ট রেল কতৃপক্ষ।

    অস্ত্র শাখার দায়িত্বরত সিআই রেজওয়ানুর রহমান ও বটতলী স্টেশনে দায়িত্ব প্রাপ্ত সিআই আমান উল্লাহ রেলওয়ে ভূসম্পত্তি বিভাগ রেলওয়ের অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করার পর সীতাকুণ্ড থেকে বটতলী স্টেশন সহ ঢাকা-চট্রগ্রাম রেললাইনের পাশের ভূসম্পত্তি বিভাগ উচ্ছেদের পর জায়গা গুলো পুনরায় দখলদারদের দখলে নিতে টাকার বিনিময়ে সহযোগিতা করেন এবং পুনরায় দখল হওয়া জায়গা গুলো থেকে মাসিক উপড়িও নেন সিআই রেজওয়ানুর রহমান ও সিআই আমান।

    চট্টগ্রাম কালুরঘাট জানালি হাট স্টেশনের আশেপাশের অবৈধ স্থাপনা থেকে প্রতিমাসে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মাধ্যমে আদায় করে ৮০ হাজার টাকা। আর এই টাকা জড়িত আরএনবি সদস্য সহ সিআই আমান ও সিআই রেজোয়ান ভাগবাটোয়ারা করে নেয়।
    আরএনবির অনিয়মে জড়িত সিআই রেজোয়ানুর রহমান ও সিআই আমান রেলওেয়ের বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা থেকে মাসিক ও নিয়মিত টাকা তোলার দায়িত্ব থাকার সংবাদটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে আাসার পরেও কোন ধরনের ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ।

    কয়েকজন আরএনবি সদস্য নাম প্রকাশ না করা শর্তে এই প্রতিবেদককে বলেন, রেজওয়ানুর রহমান সহ আরএনবির সিনিয়র কর্মকর্তারদের হুকুম মানতে ও তাদের চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন অপকর্মে জড়াচ্ছেন আরএনবি সদস্যরা।

    গত ২ মাস আগে সিআই রেজওয়ান তার সঙ্গীয় ফোর্স সহ মাস্টার লেইন পুলিশ বিট এলাকা থেকে রেলওয়ের গাছ অবৈধ ভাবে কেটে ট্রাকে করে নিয়ে যাওয়ার সময় +ঢাকা মেট্রো – ন ১৭: ২২১২ নং) ট্রাকটিকে আটক করে বটতলী স্টেশনের আরএনবির অস্ত্র শাখার সাৃনে এনে গাছ সহ ট্রাকটি নিয়ে আসে। পরে রেজওয়ান ও আমান ২ লক্ষ টাকা নগদ পেয়ে গাছ সহ ট্রাকটি ছেড়ে দেয়।

    আমানের বিরুদ্ধে রেলওয়ে উচ্ছেদকৃত জায়গা টাকার বিনিময়ে পুনরায় দখলের তথ্য ফাঁস হওয়ায় সংশ্লিষ্ট নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তারা তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি ও কমিটির তদন্তে আমান দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তদন্ত কমিটি আমানের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যাবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করলেও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ আমানের অনিয়মের তথ্য প্রমান সহ সকল অপকর্ম মাটিচাপা দিয়ে দেয়!

    সংশ্লিষ্ট এসব আরএনবির কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানা প্রকার অভিযোগ থাকার পরও ঘুরেফিরে তাদেরকেই রাখা হয়েছে এসব কর্মস্থলে। আবার পুরোনো কর্মস্থলে নিজের অবস্থান শক্তিশালী দেখাতে ইন্সপেক্টর আমানের মত অনেকে নিজেকে সরকারি দলের লোক অথবা চট্টগ্রামের স্থানীয় মন্ত্রীদের প্রভাব দেখিয়ে অনেক উর্ধতন কর্মকর্তাদের জিম্মি করে রাখে।

    একই জায়গায় ঘুরে ফিরে বছরের পর বছর এসব আরএনবি কর্মকর্তারা চাকুরীর সুযোগে অনিয়মের এক স্বর্গরাজ্য গড়ে তুলেছে আরএনবির উর্ধতন কর্মকর্তাদের যোগসাজশে।

    নাম প্রকাশ না করা শর্তে রেলওয়ের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ ও নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েকজন সদস্য বলেন, তবে দুর্নীতি দমন কমিশন এসব অভিযোগের ব্যাপারে তদন্ত করে দেখলে বের হয়ে আসবে থলের বিড়াল।

    অন্যদিকে রাষ্ট্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক সেক্টরে বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত ও বিভিন্ন সময় অনিয়মের অভিযোগে তদন্ত কমিটির অনুসন্ধানে দোষী সাব্যস্ত হয়ে তদন্ত প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে দেওয়ার পরেও তাদের বিরুদ্ধে শাস্তি মুলুক ব্যাবস্থা না নিয়ে টাকার বিনিময়ে অভিযোগ ধামাচাপা দিয়ে দেয়, এবং পরবর্তীতে অনিয়মে জড়িত দোষী কর্মকর্তারা পদন্নোতিও পায়! সিআই রেজওয়ানুর রহমান ও আগামী কিছু দিনের মধ্যে পদন্নোতি পেয়ে সহকারী কমান্ড্যান্ট হবে!

    উল্লেখ্য, রেলওয়ে পূর্বাচল নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে দেশের প্রথম সারির গণমাধ্যম গুলো একাধিক সংবাদ প্রকাশ করলে ও
    সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ এসব অনিয়মের সংবাদকে ভ্রুক্ষেপ ও করছেনা!

    গত ২ বছরে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা কিছু জাতীয় পত্রিকার শিরোনাম নিম্নে উল্লেখ্য করা হলো-

    করোনার হটস্পট থেকে ব্যারাকে ফেরায় আতঙ্কে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা!

    আগামী নিউজ (২৪ এপ্রিল) ২০২০

    রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল
    আরএনবির বদলিতে রমরমা বাণিজ্য
    দৈনিক যুগান্তর (৪’জানুয়ারী) ২০২২।

    সেনা সদস্যকে মারধরের অভিযোগে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর ৪ সদস্য বরখাস্ত
    দ্য ডেইলি স্টার (২৫ আগষ্ট) ২০২২।

    বাড়িতে শুয়ে-বসে বেতন তোলেন রেলের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা
    সময় টিভি (২৫ ফেব্রুয়ারী) ২০২১

    অনিয়মের প্রতিবাদকারীকে মারধর করায় রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর ৪ সদস্য বরখাস্ত
    দৈনিক প্রথম আলো (২৫ আগষ্ট) ২০২২

    মাদকসহ পুলিশ কনস্টেবল ও রেলওয়ে নিরাপত্তা সদস্য আটক
    দৈনিক যুগান্তর (১৪ মার্চ) ২০২০

    পাঁচ ধাপ পদোন্নতি অষ্টম শ্রেণি পাস মৃধার
    রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনী আরএনবি
    দৈনিক সমকাল (২ সেপ্টেম্বর) ২০২২

    রেলের সম্পদের অপব্যবহার: দোষীকে শাস্তির বদলে ‘পুরস্কার’
    দ্য ডেইলি স্টার (২৬ ডিসেম্বর) ২০২২

    দুুর্নীতির অভিযোগে বদলী, বদলীর জায়গায় দুর্নীতি!
    মুক্ত আকাশ (৯ জানুয়ারী) ২০২৩

    দুর্নীতিতে অপ্রতিরোধ্য এক আরএনবি কর্মকর্তা!
    মুক্ত আকাশ২৪.কম (৩১ মার্চ) ২০২৩।

    বাংলাদেশ রেলওয়ের আলাদা মন্ত্রণালয় থাকার পরেও সরকারি একটি প্রশাসনিক দপ্তরের কর্মকর্তার এসব দুর্নীতির সাথে সরাসরি জড়িত থাকা নিয়ে জাতীয় গণমাধ্যমে অপরাধ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশ করার পর ও কেন ব্যাবস্থা নেওয়া হয়না এটাই এখন রেল অঙ্গনে ও জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

    পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ সংবাদটি পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন।

    আরও খবর 65

    Sponsered content